আমি আমার স্বামীর পায়ের নিচে থাকতে এসেছি

আমি আমার স্বামীর পায়ের নিচে থাকতে এসেছি, আমি তো যেতে আসিনি। আমাকে তোমার বাড়ির দাসী করে

রেখে দাও। এক বেলা খাবার দিয়ো, তবুও আমাকে চলে যেতে বলো না। আমি না তোমায় সত্যি অনেক বেশি ভালবাসি।

আমার তো মা নেই, তাই ভালবাসা কি বুঝিনি। তুমি আমাকে ছেড়ে যেয়ো না। জানো কাল রাতে যখন স্বপ্ন দেখেছি তোমার

আরও ভালোবাসার গাল্প পেতে ভিজিট করুউঃ bentrick.xyz

আমি আমার স্বামীর পায়ের নিচে থাকতে এসেছি

আমি কখনো নামায পড়তাম না। এখন নামায পড়ে আল্লাহর কাছে তোমাকেই চাই। তুমি যে আমার জীবন।

আমাকে একটু তোমার বুকে নিবে? খুব কষ্ট হচ্ছে আমার। নিঃশ্বাসগুলো বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। কথার মুখে এমন কথা শুনে

নিজেরই খুব কষ্ট হচ্ছে। কথা তো আমার স্ত্রী আল্লাহ্ তায়ালার পবিএ কালামকে সাক্ষী রেখে তাকে বিয়ে করেছি।

নাহ্ আর কষ্ট দেওয়া ঠিক হবে না। কথার চোখের পানিতে পা দুটি ভেজে যাচ্ছে। আর থাকতে পারলাম না।

কথাকে ঠান দিয়ে বুকে জড়িয়ে নিলাম। এই প্রথম কথার স্পর্শ পেলাম। শরীরটা কেমন যেন কেঁপে ওঠলো।

কথা শক্ত করে জড়িয়ে ধরে আছে আমায়। কথার চোখের পানিতে আমার শার্টটা ভিঁজে যাচ্ছে। কথাকে ছাড়িয়ে

এই প্রথম কথার কপালে আলতো করে ভালবাসার স্পর্শ

এঁকে দিলাম। পরে রিত্তকে সব খুলে বললাম। হঠাৎ কথাদের বাসা থেকে ফোন আসলো, আঙ্কেল নাকি স্টোক করেছে।

ফোনটা রেখে, কথাকে নিয়ে গাড়িতে উঠে পড়লাম। কথা দ্রত গাড়ি চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু গাড়ি হাইওয়েতে উঠেই ব্রেকফেল করলো।

কোন উপায় না পেয়ে কথা গাড়ি নিয়ে ট্রাকের সাথে ধাক্কা লাগিয়ে দিলো তারপর আর কিছু মনে নেই! এক মূহুর্ত দেরি না করে সঠান হাঁটতে লাগলাম।সিড়ি ভেঙ্গে নিচে নামার সময়ও কেন যেন মনে হচ্ছিলো

আঁড়ালে থেকে কেউ আমার দিকে দৃষ্টি রাখছে। সে চোখের দৃষ্টি বড্ড প্রখর। দ্রুত নিচে নেমে জানালা দিয়ে বেরিয়ে পড়লাম।

আমি আমার স্বামীর পায়ের নিচে থাকতে এসেছি

বাহিরে বের হওয়ার পর পরই ঠান্ডা বাতাসে শরীরে অন্যরকম একটা প্রশান্তি অনুভব হলো। মনে হচ্ছে এতক্ষণ পৃথিবী থেকে অনেক দূরে একটা ভিন্নস্থানে চলে অবস্থান করছিলাম,যেখানে প্রাণ খুলে শ্বাস নেওয়াটাই বড্ড কষ্টের।

একটা লম্বা শ্বাস নিয়ে বাগান পেরিয়ে প্রাচীরের দিকে এগিয়ে যেতে লাগলাম। এ বাড়িতে কিছু তো একটা গন্ডগোল আছে। তবে কি সেটা? আর সেটাই আমাকে খুঁজে বার করতে হবে। প্রাচীরের কাছে এসে একটাবার দোতলার বেলকনির দিকে তাকালাম,

রোদের আলোতে বেলকনিটা চকচক করছে। কেন যানি মনে হচ্ছে বাচ্চা মেয়েটা রেলিং ধরে দাঁড়িয়ে আছে,আর ক্ষীণ দৃষ্টিতে আমার দিকে তাকিয়ে আছে।

About admin

Check Also

ঘুমিয়ে থাকা অবস্থায় আমি অনুভব করলাম কে

ঘুমিয়ে থাকা অবস্থায় আমি অনুভব করলাম কে

ঘুমিয়ে থাকা অবস্থায় আমি অনুভব করলাম কে, যেনো আমার বিছানার পাশে বসে রবীন্দ্র সংগীত গাইছে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.